শিরোনাম
ন্যায়বিচার পেতে আমাকে ক্ষমতায় আসতে হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী নরসিংদীতে বাস-কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২ চাঁনমারী এলাকার কিশোর গ্যাং আশিক গ্রুপের দু’সদস্যসহ গ্রেফতার ৫ ফকিরহাটে ২৪ কেজি গাঁজা ও ৩৬০ পিস ইয়াবাসহ চার মাদক কারবারি গ্রেফতার নগরীতে শতাধিক ক্ষুদে শিক্ষার্থীকে বিদ্যাবন্ধু’র শিক্ষা উপকরণ বিতরণ  বাগেরহাটে অগ্নিকাণ্ডে কিশোরের মৃত্যু রামপালে যুবককে মারপিট, টাকা-স্বর্ণের চেইন ছিনতাইের অভিযোগ শিশুর শ্লীলতাহানীর অভিযোগে মামলা, অভিযুক্তকে গণপিটুনি আশাশুনিতে পিকআপ-ইজিবাইক সংঘর্ষে দুই নারী হজ্বযাত্রী নিহত ইউরোপীয়রা জানতো, নির্বাচনে আমিই জিতব : প্রধানমন্ত্রী

সরকারই বাজার সিন্ডিকেট সক্রিয় রাখছে : ফারুক

খুলনার চিত্র ডেস্কঃ
  • প্রকাশিত : রবিবার, ৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

সরকার মুখে দ্রব্যমূল্য রোধের কথা বললেও ভেতরে বাজার সিন্ডিকেট সক্রিয় রাখছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের অন্যতম উপদেষ্টা ও সাবেক বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক।

শনিবার (০৩ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে বাজার পরিস্থিতি তুলে ধরে এই অভিযোগ করেন তিনি।

জয়নুল আবদিন ফারুক বলেন, হায়রে কপাল, হায়রে দেশ, হায়রে মানুষ, হায়রে আওয়ামী লীগ। দাপটে কথা বলেন, লজ্জা হয় না। দাপট দিয়ে কথা বলেন যে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি রোধ করব আর ভেতর দিয়ে সিন্ডিকেট তৈরি করেন। যেই সিন্ডিকেটের টাকায় আপনাদেরও (সরকার) শেয়ার আছে। সেই সিন্ডিকেটের টাকা দিয়ে আজকে মালয়েশিয়া-কানাডা-ব্যাংকক-সিঙ্গাপুরে বাসা বানাবেন, বাড়ি বানাবেন, ব্যবসা করবেন। অন্যদিকে বাংলাদেশের গরিব মানুষ একটা ডিম কিনে খেতে পারে না, এক কেজি দূরে থাক- এক ছটাক মাংস কিনে খেতে পারে না, তারা (সরকার) আবার দাপটে কথা বলে।

তিনি বলেন, যারা দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি রুখতে পারেন না, যারা মানুষকে ঘরে শান্তিতে ঘুমাবার ব্যবস্থা করে দিতে পারেন না, যারা উন্নয়নের নামে মেগা প্রজেক্টের নামে কোটি কোটি টাকা লুট করে বিদেশে নিয়ে যাচ্ছে- তাদের লজ্জা হওয়া উচিত। আপনাদের মুখ বন্ধ রাখা উচিত, আপনাদের অবিলম্বে পদত্যাগ করা উচিত। কারণ এই সরকার জনগণের সরকার নয়, জনগণের ভোটের সরকার নয়।

সরকারের উদ্দেশে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘আপনারা আমাদেরকে অবহেলা করে কথা বলেন। অথচ নিজেরা যে দিন দিন অবহেলিত হচ্ছেন, নিজেদের আজকে যে পায়ের নিচ থেকে মাটি সরে যাচ্ছ- সেটা বুঝতে পারছেন না। আমাদের দুর্বল ভাববেন না। আমরা সবল আছি, আমরা সৎ আছি, আমরা অতীতে সততার সাথে সরকার পরিচালনা করেছি। তাই আমাদের নেত্রী বলেছেন- বিদেশিরা আমার বন্ধু, প্রভু নয়। বিদেশের মাটিতে আমার এক ছটাক জায়গাও নেই। আজকে বুকে হাত দিয়ে বলেন, পাকিস্তানে ২২ পরিবারের বিরুদ্ধে লড়াই করতে গিয়ে আজকে কত লাখ পরিবারকে কোটিপতি বানিয়েছেন তার হিসাব এক দিন আপনাদের দিতে হবে।’

সরকার পতন আন্দোলন চলবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘জানি কষ্ট হচ্ছে বিএনপির নেতা-কর্মীদের। তারপরও আন্দোলন চালিয়ে যেতে হবে। জনগণ আমাদের সাথে আছে। অচিরেই আবার কর্মসূচি আসবে, অচিরেই সরকার পতন আন্দোলনে বিএনপি আবার মাঠে নামবে। কড়ায়-গন্ডায় হিসাব নেওয়া হবে।’

ফারুক বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে যারা অংশগ্রহণ করেছেন তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলতে চাই, যে অঙ্গীকার নিয়ে স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলাম, মুক্তিযোদ্ধাদের সেই অঙ্গীকার আমরা একদলীয় শাসনকে বিদায় করে কেয়ারটেকার সরকারের অধীনে নির্বাচনের ব্যবস্থা করে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনব, জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করব ইনশাল্লাহ।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস ও আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীসহ রাজবন্দিদের মুক্তির দাবিতে ‘স্বাধীনতা অধিকার আন্দোলন’ নামক একটি সংগঠনের উদ্যোগে এই মানববন্ধন হয়।

সংগঠনের সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান মনিরের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী, আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, কৃষক দলের জাহাঙ্গীর আলম, কাদের সিদ্দিকী, মৎস্যজীবী দলের ইসমাইল হোসেন সিরাজী, তাঁতী দলের গোলাপ মঞ্জুর, সাখাওয়াত হোসেন, যুব জাগপার মীর আমির হোসেন আমু প্রমুখ নেতা বক্তব্য রাখেন।

সংশ্লিষ্ঠ আরও খবর