শিরোনাম
ন্যায়বিচার পেতে আমাকে ক্ষমতায় আসতে হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী নরসিংদীতে বাস-কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২ চাঁনমারী এলাকার কিশোর গ্যাং আশিক গ্রুপের দু’সদস্যসহ গ্রেফতার ৫ ফকিরহাটে ২৪ কেজি গাঁজা ও ৩৬০ পিস ইয়াবাসহ চার মাদক কারবারি গ্রেফতার নগরীতে শতাধিক ক্ষুদে শিক্ষার্থীকে বিদ্যাবন্ধু’র শিক্ষা উপকরণ বিতরণ  বাগেরহাটে অগ্নিকাণ্ডে কিশোরের মৃত্যু রামপালে যুবককে মারপিট, টাকা-স্বর্ণের চেইন ছিনতাইের অভিযোগ শিশুর শ্লীলতাহানীর অভিযোগে মামলা, অভিযুক্তকে গণপিটুনি আশাশুনিতে পিকআপ-ইজিবাইক সংঘর্ষে দুই নারী হজ্বযাত্রী নিহত ইউরোপীয়রা জানতো, নির্বাচনে আমিই জিতব : প্রধানমন্ত্রী

বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন ২৮৫ ব্যক্তিকে প্রাথমিকে নিয়োগ দিতে হাইকোর্টের নির্দেশ

খুলনার চিত্র ডেস্কঃ
  • প্রকাশিত : রবিবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০২৪

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে ২০২০ সালের নিয়োগ পরীক্ষায় ১০ শতাংশ বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন কোটা পূরণ করে ২৮৫ জন প্রার্থীকে নিয়োগ দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

রোববার (১৪ জানুয়ারি) বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি কাজী জিনাত হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করেন। এ সময় অবিলম্বে তাদের নিয়োগের নির্দেশ দেন আদালত। বলেন, লিখিত পরীক্ষায় পাশের পর ভাইভাতে কেউ উত্তীর্ণ হবে না, এমনটাতো হতে পারে না।

রায়ের পর রিটকারী আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া বলেন, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন ব্যক্তিদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় হাইকোর্টের আজকের রায় যুগান্তকারী। আশা করছি, কর্তৃপক্ষ অবিলম্বে হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়ন করবেন।

এর আগে, গত ১১ ডিসেম্বর ওই ২৮৫ ব্যক্তির সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কোটার ভিত্তিতে নিয়োগে জারি করা রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষ হয়। পরে রায়ের জন্য আজকের দিন ধার্য করা হয়েছিল। রিটকারীদের পক্ষের আইনজীবী বলেন, এই রায়ের মাধ্যমে তারা তাদের অধিকার ফিরে পাবেন।

উল্লেখ্য, ১১৪ বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন ব্যক্তির সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কোটার ভিত্তিতে নিয়োগের নির্দেশনা চেয়ে রিটটি করেন অ্যাডভোকেট ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া। তিনি তাদের পক্ষে বিনা পারিশ্রমিকে মামলাটি পরিচালনা করছেন। একই বিষয়ে পরে ১৭১ জন পৃথক আরও তিনটি রিট দায়ের করেন। রিটের শুনানি নিয়ে রুল জারি করা হয়।

সংশ্লিষ্ঠ আরও খবর