বলিউডে বাঙালি অভিনয়শিল্পীদের দাপট

খুলনার চিত্র ডেস্কঃ
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ২৫ মে, ২০২১

জয়া বচ্চন, মৌসুমী চ্যাটার্জি, মিঠুন চক্রবর্তী, মালা সিনহা, শর্মিলা ঠাকুরের মতো অনেক বাঙালি অভিনয়শিল্পী বলিউডে অভিনয় করে খ্যাতি কুড়িয়েছেন। যারা ভারতীয় বাংলা সিনেমার মাধ্যমে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন। টলিউডের বর্তমান সময়ের অনেক অভিনয়শিল্পীও উত্তরসূরিদের পথ ধরে বলিউডে পা রেখেছেন। তারাও নিজ নিজ গুণে বলিউড দর্শকদের মুগ্ধ করে চলেছেন। এমন কজন টলিউডের বাঙালি অভিনয়শিল্পীকে নিয়ে সাজানো হয়েছে এই প্রতিবেদন।

শাশ্বত চ্যাটার্জি: টলিউডের দর্শকপ্রিয় অভিনেতা শাশ্বত চ্যাটার্জি। ২০১২ সালে ‘কাহানি’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখেন তিনি। এ সিনেমায় তার অভিনয় দারুণ প্রশংসা কুড়ায়। দীর্ঘ পাঁচ বছরের বিরতির পর বলিউডের ‘জাগ্গা জাসুস’ সিনেমায় অভিনয় করেন শাশ্বত। সর্বশেষ গত বছর ‘দিল বেচারা’ সিনেমায় দেখা যায় তাকে। বলিউডে খুব বেশি সিনেমায় অভিনয় না করলেও নিজের জাত চিনিয়েছেন এই শিল্পী।

যীশু সেনগুপ্ত: ভারতীয় বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা যীশু সেনগুপ্ত। ২০০৫ সালে ‘নেতাজী সুভাস চন্দ্র বসু: দ্য ফরগটেন হিরো’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে তার অভিষেক ঘটে। বরেণ্য নির্মাতা শ্যাম বেনেগালের হাত ধরে বলিউড দুনিয়ায় হাঁটতে শুরু করেন যীশু। বলিউডে পা রেখে প্রশংসা কুড়িয়েছেন তিনি। কঙ্গনা রাণৌত পরিচালিত ‘মণিকর্নিকা’ সিনেমায় অভিনয় করে দারুণ প্রশংসিত হয়েছেন। বলিউডে তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমা হলো—‘মারদানি’, ‘বরফি’, ‘পিকু’, ‘মণিকর্নিকা’, ‘মারদানি-২’, ‘দ্য পাওয়ার’ প্রভৃতি। বর্তমানে তার হাতে বেশ কয়েকটি হিন্দি ভাষার সিনেমার কাজ রয়েছে।

পাওলি দাম: টলিউড সিনেমার অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী পাওলি দাম। শাকিব খানের বিপরীতে বাংলাদেশি সিনেমায় কাজ করেছেন তিনি। বাঙালি এই অভিনেত্রী অভিনয় করেছেন বলিউড সিনেমায়ও। ২০১২ সালে ‘হেট স্টোরি’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউড দুনিয়ায় তার পথচলা শুরু। অভিষেক সিনেমার মাধ্যমে বলিউড দর্শকের নজর কাড়েন তিনি। পরের বছরই ‘অঙ্কুর আরোরা মার্ডার কেস’ সিনেমায় অভিনয় করেন তিনি। এছাড়াও বলিউডের ‘গ্যাং অব গোস্টস’, ‘ইয়ারা সিলি সিলি’, ‘বুলবুল’ প্রভৃতি সিনেমায় দেখা গেছে তাকে।

পরমব্রত চ্যাটার্জি: ভারতীয় বাংলা সিনেমার অভিনেতা-নির্মাতা পরমব্রত চ্যাটার্জি। আশনা হাবিব ভাবনার সঙ্গে জুটি বেঁধে বাংলাদেশি সিনেমায় কাজ করেছেন তিনি। ২০১২ সালে ‘কাহানি’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে তার অভিষেক ঘটে। সিনেমাটি মুক্তির পর প্রশংসা কুড়ান তিনি। দুই বছরের বিরতি নিয়ে ২০১৪ সালে হিন্দি ভাষার ‘গ্যাং অব গোস্টস’ সিনেমা পরিচালনা করেন। বলিউডে তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমা হলো—‘ইয়ারা সিলি সিলি’, ‘পরী’, ‘বুলবুল’, ‘ব্ল্যাক উইন্ডো’ প্রভৃতি।

স্বস্তিকা মুখার্জি: টলিউডের দারুণ আলোচিত অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখার্জি। অভিনয় গুণে যেমন আলোচনায় উঠে এসেছেন, তেমনি ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বরাবরই খবরের শিরোনামে থাকেন তিনি। এই নায়িকাও পাড়ি জমিয়েছেন বলিউডে। ২০১৫ সালে ‘ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বক্সি’ সিনেমার মাধ্যমে তার বলিউডে অভিষেক ঘটে। এরপর উপহার দেন ‘দিল বেচারা’, ‘ব্ল্যাক উইন্ডোজ’ প্রভৃতি সিনেমা।

রাইমা সেন: সুচিত্রা সেনের নাতনি রাইমা সেন। তার মা মুনমুন সেন ভারতীয় বাংলা সিনেমার পরিচিত মুখ। বলিউডেও তার খ্যাতি রয়েছে। রাইমা ১৯৯৯ সালে হিন্দি ভাষার ‘গডমাদার’ সিনেমার মাধ্যমে বড় পর্দায় নাম লেখান। দুই বছরের বিরতি তিনি অভিনয় করেন ‘দামান’ সিনেমায়। পরের বছরই ‘নীল নির্জন’ সিনেমার মাধ্যমে ভারতীয় বাংলা সিনেমায় পা রাখেন। তার পরের বছরই তাকে দেখা যায় টলিউডের ‘চোখের বালি’ সিনেমায়। একই বছর আবারো হিন্দি সিনেমায় দেখা যায় তাকে। টলিউড ও বলিউডে সমানতালে কাজ করে যান এই অভিনেত্রী। বলিউডে তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমা হলো—‘ডুডস ইন দ্যা ১০ সেঞ্চুরি’, ‘কুচ দিল নে কাহা’, ‘দাস’, ’৯৯.৯’, ‘ইয়াতরা’ ‘চিলড্রেন অব ওয়ার’ প্রভৃতি।

সংশ্লিষ্ঠ আরও খবর