বন্ধুর বউকে বিয়ে করা আর্জেন্টিনা ফুটবলারের সংসারও টিকল না

খুলনার চিত্র ডেস্কঃ
  • প্রকাশিত : রবিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২১

মাউরো ইকার্দির বিয়েটা আলোচনায় এসেছিল বেশ। ২০১৪ সালে একসময়ের সতীর্থ ও বন্ধু ম্যাক্সি লোপেজের স্ত্রী ওয়ান্ডা নারাকে বিয়ে করেন তিনি। এরও আগে থেকেই তাদের মধ্যে চলে আসছিল প্রেম। এবার অবশ্য ভেঙে যাচ্ছে ইকার্দি-নারার সংসারও।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ইকার্দির স্ত্রী নারা। ২০০৮ সালে মডেল ওয়ান্ডা নারাকে বিয়ে করেন লোপেজ। সংসারটাও চলছিল ঠিকঠাক। ঘরে এসেছিল তিন সন্তান। কিন্তু তাতেই হঠাৎ হাজির হন ইকার্দি। ২০১২-১৩ মৌসুমে তিনি যোগ দেন সাম্পদোরিয়াতে।

একই দেশের হওয়ায় এই ক্লাবে লোপেজের সঙ্গে সম্পর্কটাও বন্ধুত্বে রূপ নেয় ইকার্দির। কিন্তু লোপেজ কি আর তখন জানতেন স্ত্রী নারা প্রেমে পড়েছেন ইকার্দির। সম্পর্কটা তাই আর বেশিদিন টেকেনি নারা-লোপেজের। তাদের বিচ্ছেদের পরই ইকার্দিকে বিয়ে করেন নারা।

এবার তাদের সংসারও টিকল না। তবে বিপত্তিটা বেধেছে আরও একটি জায়গায়। ইকার্দি নিজের পুরো শরীরজুড়েই নারা ও তার সন্তানদের ছবি ও নাম ট্যাটু করেছেন। বিচ্ছেদ হয়ে যাওয়ার পর এখন সেগুলোর কী হবে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনা হচ্ছে।

নারাকে বিয়ে করার জন্য কম দুর্ভোগ পোহাতে হয়নি ইকার্দিকে। বয়সে ৫ বছরের বড় এই নারীকে বিয়ে করায় জাতীয় দলে সুযোগ পাচ্ছেন না তিনি, এমন কথাও ছড়িয়েছিল। মেসিসহ আর্জেন্টিনার কয়েকজনের ঘনিষ্ঠ লোপেজ। তাই নাকি গোলের বন্যা বইয়ে দিয়েও সুযোগ মেলেনি ইকার্দির। ম্যারাডোনা তো একবার বলেওছিলেন, ‘বন্ধুর বউকে ভাগিয়ে নিয়ে বিয়ে করে, এমন ফুটবলারকে কখনো জাতীয় দলে নেওয়া উচিত না।’

সংশ্লিষ্ঠ আরও খবর