প্রধানমন্ত্রীর তহবিলের থেকে আর্থিক সহায়তা পেলেন কয়রা ছাত্রলীগের প্রয়াত রাসেলের মাতা

খুলনার চিত্র ডেস্কঃ
  • প্রকাশিত : রবিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২১

চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিল থেকে আর্থিক সহযোগিতার ৬ লাখ টাকার চেক পেলেন কয়রা উপজেলা ছাত্রলীগের প্রয়াত সাধারণ সম্পাদক সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হাদীউজ্জামান রাসেলের অসুস্থ মাতা রাবেয়া খাতুন। গত শনিবার সকালে কয়রা উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীর উপস্থিতিতে প্রয়াত ছাত্রলীগ নেতা হাদীউজ্জামান রাসেলের অসুস্থ মায়ের পক্ষে প্রয়াত রাসেলের পিতা আব্দুস সাত্তার সানার হাতে নগদ ১ লক্ষ টাকার চেক ও ৫ লক্ষ টাকার সঞ্চয় পত্র তুলে দেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মো. আক্তারুজ্জামান বাবু।

এছাড়াও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শাহাবুদ্দিনকে ২লক্ষ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ঢালী আমিরুল ইসলামকে ৩লক্ষ, বাগালী ইউনিয়নের সাবেক ছাত্রলীগের সভাপতি লিটনের অসুস্থ শিশু সন্তানের চিকিৎসার জন্য ১লক্ষ টাকার চেক তুলে দেন সাংসদ আক্তারুজ্জামান বাবু।

এসময় সাংসদ আক্তারুজ্জামান বাবু বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একান্ত সুদৃষ্টি এবং সার্বিক সহযোগিতায় কয়রায় ব্যাপক উন্নয়ন এবং দারিদ্র বিমোচন করতে সক্ষম হয়েছি। তিনি বলেন, আইন শৃঙ্খলার উন্নয়ন এবং এলাকায় রাজনৈতিক দুর্বৃত্তায়ন মুক্ত হওয়ায় উপজেলার সকল শ্রেনী-পেশার মানুষ এখন সুখে-শান্তিতে বসবাস করছে। সকল শ্রেনীর মানুষের শান্তিপুর্ণ সহাবস্থান নিশ্চিত করাই আমার লক্ষ্য। উপজেলা ছাত্রলীগের প্রয়াত সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাদীউজ্জামান রাসেলের পিতা আব্দুস সাত্তার সানা অনুদানর চেক গ্রহণের অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে খুশিতে আপ¬ুত হয়ে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর অনুদান স্থানীয় সংসদ সদস্যের মাধ্যমে পেয়ে আমি আনন্দিত। এজন্য আমরা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মো. আক্তারুজ্জামান বাবুর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি। তিনি যেন তার সেবার মাধ্যমে বাংলার প্রতিটি ঘরকে সুখ ও সমৃদ্ধিতে ভরে তুলতে পারেন মহান আল্লাহর কাছে সেই কামনা করছি।

চেক বিতরণকালে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জি এম মহসিন রেজা সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি কফিল উদ্দিন মাস্টার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাড. কমলেশ কুমার সানা, কপোতাক্ষ কলেজের অধ্যক্ষ অদ্রীশ আদিত্য মন্ডল, উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি মাস্টার জিএম কফিল উদ্দিন আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ও কয়রা সদরের নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান এস এম বাহারুল ইসলাম, আমাদি ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ জিয়াউর রহমান জুয়েল, বাগালি ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুস সামাদ গাজী, মহেশ্বরীপুর ইউপি চেয়ারম্যান প্রভাষক শাহনেওয়াজ শিকারি, মহারাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদুল্লাহ আল মাহমুদ, উত্তর বেদকাশি ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সরদার নুরুল ইসলাম কোম্পানি, দক্ষিণ বেদকাশী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আছের আলী মোড়ল, আ’লীগ নেতা এস এম হারুন-অর-রশিদ, সমরেশ মজুমদার, এস এম জিয়াদ আলী, খয়রুল আলম, গণেশ চন্দ্র মন্ডল, নির্মল কুমার দাশ, রশিদ মোড়ল, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শরিফুল ইসলাম টিংকু, সহ-সভাপতি তরিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক বাদলসহ আ’লীগ ও বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ।

সংশ্লিষ্ঠ আরও খবর