আজ || মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪
 


নগরীর লাভলু হোটেলে অভিযান পরিচালনাকারী গ্রেফতার ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট কারাগারে

খুলনা চিত্র ডেস্ক: নগরীর ক্লে রোডস্থ লাভলু হোটেলে ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয়ে অভিযান পরিচালনাকারী এম সোহেল আরমান নামের একজন প্রতারককে গ্রেফতার করে পুলিশ। সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকের এ ঘটনাটি ঘটে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে প্রেসব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানানো হয়। গ্রেফতার এম সোহেল আরমান (৩৮) বটিয়াঘাটার ডুবি এলাকার মোঃ আবুল ফজলের ছেলে।
জানা গেছে, গত ৮ জুন রাত ৮টার দিকে নগরীর ডাকবাংলা মোড়ের লাভলু হোটেলে খুলনা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয় দিয়ে ওই ব্যক্তি মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। এ সময় তিনি বিভিন্ন অভিযোগে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। একই সাথে ওই হোটেল ম্যানেজারের নিকট হতে জরিমানার টাকা আদায় করেন। পরে হোটেল মালিককে জরিমানার বিষয়টি অবগত করেন ম্যানেজার। হোটেল মালিক তাৎক্ষণিকভাবে খুলনা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে যোগাযোগ করে জানতে পারেন ঘটনার দিন (৮ জুন) ডাকবাংলা মোড় এলাকায় খুলনা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের পক্ষ থেকে কোন মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়নি।

খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের একটি চৌকস টিম ঘটনাস্থলের আশেপাশের সিসি টিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ করে ঘটনার সাথে জড়িত অপরাধীকে শনাক্তপূর্বক গ্রেফতারের জন্য নগরীসহ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। গত ১০ জুন রাত সাড়ে ১১টার দিকে খালিশপুরের বৈকালী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট এম সোহেল আরমানকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় এম সোহেল আরমানের হেফাজত হতে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার জন্য ব্যবহৃত জরিমানা আদায়ের বহি, ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক কারাদণ্ড বা জরিমানার জন্য কয়েদের পরোয়ানা ফরম, জব্দ তালিকা ফরম, অভিযোগ গঠন ফরম, মোবাইল কোর্ট পরিচালনা সংক্রান্ত রিপোর্ট ফরম, খুলনা জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আসিফুর রহমান, পরিচিতি নম্বর-১৬৫০৫, সিনিয়র সহকারী এক্সিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, পরিবেশ অধিদপ্তর, খুলনা বিভাগীয় কার্যালয়, খুলনা নামক দু’টি সীল এবং ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয়ে ব্যবহৃত মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। গ্রেফতারকৃত ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয়দানকারী প্রতারকের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগী লাভলু হোটেলের ম্যানেজারের অভিযোগের ভিত্তিতে সদর থানায় মামলা হয়েছে।


Top