টাঙ্গাইলে ভুল চিকিৎসায় মা ও নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ

খুলনার চিত্র ডেস্কঃ
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২৬ মে, ২০২২

টাঙ্গাইলের ভুঞাপুরে একটি বেসরকারি ক্লিনিকের বিরুদ্ধে ভুল চিকিৎসায় মাসহ নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। বুধবার (২৫ মে) রাতে ভুঞাপুর বাজারের মা ক্লিনিক অ্যান্ড হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।

ওই প্রসূতির নাম লাইলী বেগম (৩০)। তিনি উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের খানুরবাড়ি গ্রামের আতোয়ার হোসেনের স্ত্রী।

জানা গেছে, লাইলী বেগমের প্রসববেদনা হলে স্বজনরা তাকে ভুঞাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। হাসপাতালের কর্মরত চিকিৎসক রোগীকে টাঙ্গাইলে রেফার করেন। এ সময় তারা সেখানে থাকা ক্লিনিকের দালাল শামছুর খপ্পরে পড়ে। পরে দালালের কথামতো মা ক্লিনিক অ্যান্ড হাসপাতালে নিয়ে যায়।

ওই ক্লিনিকের সার্জারি চিকিৎসক ও ভুঞাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার এনামুল হক সোহেল ও অ্যানেস্থেসিয়ার চিকিৎসক ডা. আল মামুন অস্ত্রোপচার শুরু করেন। এক পর্যায়ে রোগী অপারেশনের টেবিলেই মারা যায়। পরে স্বজনদের না জানিয়ে লাশ অ্যাম্বুলেন্সে উঠিয়ে টাঙ্গাইলে পাঠিয়ে দেওয়ার সময় স্বজন ও স্থানীয়রা বাধা দেয়।

রোগীর স্বজনরা জানায়, প্রসববেদনা শুরু হলে সরকারি হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে দালালের খপ্পরে পরে ক্লিনিকে আনা হয়। সেখানে চিকিৎকরা দুই ঘণ্টা ধরে অপারেশন থিয়েটারে রাখে। পরে রোগী মারা গেলে ক্লিনিকের সামনে রেখে চিকিৎসক, নার্স ও মালিক পালিয়ে যায়।

ভুঞাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. আল মামুন বলেন, মা ক্লিনিকে আনার পর তার উচ্চরক্ত চাপ দেখা দেয়। পরে অপারেশনের আগেই রোগী বমি করে। এরপরই সে মারা যায়।

ভুঞাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ফরিদুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ক্লিনিকে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তবে ক্লিনিকের চিকিৎসক, নার্স ও মালিক পালিয়ে গেছে।

সংশ্লিষ্ঠ আরও খবর