শিরোনাম
ন্যায়বিচার পেতে আমাকে ক্ষমতায় আসতে হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী নরসিংদীতে বাস-কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২ চাঁনমারী এলাকার কিশোর গ্যাং আশিক গ্রুপের দু’সদস্যসহ গ্রেফতার ৫ ফকিরহাটে ২৪ কেজি গাঁজা ও ৩৬০ পিস ইয়াবাসহ চার মাদক কারবারি গ্রেফতার নগরীতে শতাধিক ক্ষুদে শিক্ষার্থীকে বিদ্যাবন্ধু’র শিক্ষা উপকরণ বিতরণ  বাগেরহাটে অগ্নিকাণ্ডে কিশোরের মৃত্যু রামপালে যুবককে মারপিট, টাকা-স্বর্ণের চেইন ছিনতাইের অভিযোগ শিশুর শ্লীলতাহানীর অভিযোগে মামলা, অভিযুক্তকে গণপিটুনি আশাশুনিতে পিকআপ-ইজিবাইক সংঘর্ষে দুই নারী হজ্বযাত্রী নিহত ইউরোপীয়রা জানতো, নির্বাচনে আমিই জিতব : প্রধানমন্ত্রী

মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে খুলনায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত 

খুলনার চিত্র ডেস্কঃ
  • প্রকাশিত : শনিবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০২৩

মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে নগরীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ ৯ ডিসেম্বর শনিবার সকাল ১০ টায় বিডব্লুজিইডি, ক্লীন এবং ধ্রুব এর যৌথ আয়োজনে খুলনা সরকারী জয় বাংলা কলেজ প্রাঙ্গনে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। ধ্রুব সংস্থার নির্বাহী পরিচালক রেখা মারিয়া বৈরাগীর সভাপতিত্বে ও প্রভাষক উত্তম দাস-এর সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তৃতা করেন আবুল বাসার শেখ, মোঃ বিল্লাল হোসেন, জিল্লুর রহমান, মো: নাজিম উদ্দীন, শারমিন আক্তার, বিউটি খাতুন, নাদিরা পারভীন, সুমন, বাবু, রাফি, সালমা, শেখ তৈয়বুর রহমান, মোঃ রুবেল শেখ, কাজি কামাল, নুরজাহান আক্তার, রেহেনা, মৃদুল সাহা, কাজী মঞ্জুরুল হাসান প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বিভিন্ন দাবি তুলে ধরেন বলেন (১) কৃষিজমি বা বাস্তভিটায় কোন ভাবেই কোন জ্বালানি প্রকল্প গ্রহন করা যাবে না। সাধারণ মানুষকে তার বসতভিটা থেকে উচ্ছেদ করা যাবে না। (২)ইতোমধ্যে যাদের ভূমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে, তাদের জায়গায় গৃহিত প্রকল্পের লভ্যাংশ তাদেরকে নিয়মিত দিতে হবে। (৩) বিদ্যুৎকেন্দ্র সংক্রান্ত যেকোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণে নির্মাণের পূর্বেই স্থানীয়দের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে, তাদের মতামতের গুরুত্ব দিতে হবে (৪) ভূমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া, ক্ষতিপূরণ নির্ধারণ ও বিতরণ এবং ক্রয় সংক্রান্ত কার্যক্রমে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে হবে (৫) প্রকল্প বাস্তবায়নের বিভিন্ন পর্যায়ে সংঘটিত দুর্নীতির তদন্তপূর্বক সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে (৬) সকল বিদ্যুৎকেন্দ্রে শ্রমিকদের ন্যায্য দাবী বাস্তবায়ন করে তাদের মানবাধিকার নিশ্চিত করতে হবে (৭) স্থানীয় পরিবেশের ক্ষতি করে কোনো প্রকল্প গ্রহণ করা যাবেনা (৮) নারী অধিকার রক্ষায়, যে-কোন জ্বালানি প্রকল্পের ব্যবস্থাপনা কমিটিতে কমপক্ষে ৩০ শতাংশ নারী সদস্য মনোনীত করতে হবে (৯) দীর্ঘ মেয়াদি প্রকল্পের ক্ষেত্রে ভূমি ইজারা নিতে হবে এবং জমির বার্ষিক ভাড়া প্রদানের সুষ্পষ্ট নীতিমালা তৈরি করতে হবে (১০) কৃষিভিত্তিক সৌর বিদ্যুৎ উৎপাদনে অর্থায়ন করতে হবে।

এছাড়াও বক্তারা বলেন মানবাধিকার যেকোনো মানুষের অবিচ্ছেদ্য অধিকার। আর্ন্তজাতিক নির্দিষ্ট পরিস্থিতিতে এবং যথাযথ প্রক্রিয়া অনুযায়ী ব্যতীত এই অধিকার হরণ করা যায় না। সমস্ত মানবাধিকার অবিভাজ্য এবং পরস্পর নির্ভরশীল। এর অর্থ হল; এক ধরনের অধিকার অন্যটি ছাড়া সম্পূর্ণরূপে উপভোগ করা যায় না। সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি, বন্যা, তাপপ্রবাহ, খরা, মরুকরণ, পানির ঘাটতি এবং গ্রীষ্মমণ্ডলীয় সংক্রামক রোগের বিস্তারকে জলবায়ু পরিবর্তনের কিছু বিরূপ প্রভাব হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এই ঘটনাগুলি প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সারা বিশ্বে মানবাধিকারকে হুমকির মুখে ফেলে। যার মধ্যে রয়েছে জীবনের অধিকার, নিরাপদ পানীয় জল, স্যানিটেশন, খাদ্য, স্বাস্থ্য, বাসস্থান, আত্মনিয়ন্ত্রণ, সংস্কৃতি, কাজ এবং উন্নয়ন।

বাংলাদেশের মতন উন্নয়নশীল দেশ সহ পৃথিবীর বেশিরভাগ উন্নত দেশগুলো বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য জীবাশ্ম জ্বালানি ব্যবহার করছে। এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলো অনেক ক্ষেত্রেই পরিবেশের ক্ষতি করার সাথে সাথে মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে। স্থানীয় মানুষ থেকে শুরু করে এখানে কর্মরত শ্রমিকেরা নানান ভাবে মানবাধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

সংশ্লিষ্ঠ আরও খবর