করোনা বিধি বাতিল, মক্কার মসজিদ আল হারামে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে নামাজ

খুলনার চিত্র ডেস্কঃ
  • প্রকাশিত : রবিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২১

করোনাভাইরাস মহামারির আগের নিয়মে ফিরলো সৌদি আরবের পবিত্র নগরী মক্কার মসজিদ আল হারামে। মহামারি শুরু হওয়ার পর প্রথমবারের মতো রোববার এই মসজিদে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে নামাজ আদায় করেছেন মুসল্লিরা। সামাজিক দূরত্ব বিধি মানতে মসজিদের ভেতরে এবং বাইরে নামাজ আদায়ের জন্য যে গোল চিহ্ন আঁকা হয়েছিল তাও মুছে ফেলেছেন কর্মীরা।

দেশটির সরকারি সংবাদ সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সির (এসপিএ) প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সতর্কতামূলক ব্যবস্থা শিথিলের সাথে সামঞ্জস্য এবং সম্পূর্ণ ধারণক্ষমতা অনুযায়ী গ্র্যান্ড মসজিদে হজযাত্রী ও দর্শনার্থীদের অনুমতি দিতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

গ্র্যান্ড মসজিদের রোববার সকালের প্রকাশিত ছবি এবং ফুটেজে দেখা যায়, মুসল্লিরা পাশাপাশি দাঁড়িয়ে নামাজ আদায় করছেন। গত বছর করোনাভাইরাস মহামারির পর প্রথমবারের মতো সেখানে নামাজ আদায়ের জন্য সোজা সারিতে দাঁড়িয়েছেন তারা। সামাজিক দূরত্ব বিধি প্রত্যাহার হলেও কর্তৃপক্ষ বলছে, দর্শনার্থীদের অবশ্যই করোনাভাইরাসের টিকার ডোজ সম্পূর্ণ এবং মসজিদ প্রাঙ্গনে মাস্ক পরতে হবে।

তবে পবিত্র কাবা চারদিক থেকে ঘেরা থাকবে এবং সেখানে মুসল্লিদের যাওয়ার সুযোগ আপাতত মিলছে না। ওমরাহ পালনে ইচ্ছুক তীর্থযাত্রী যারা টিকার ডোজ সম্পূর্ণ করেছেন, তাদের অনুমতি দেওয়া হবে বলে গত আগস্টে ঘোষণা দেয় সৌদি আরব।

বছরের যে কোনও সময় ওমরাহ পালন করা যায় এবং প্রত্যেক বছর হজের মতো বিশ্বের নানা প্রান্তের লাখ লাখ মানুষ ওমরাহ পালনে সৌদি যান। গত জুলাইয়ে সৌদি সরকার দেশটির টিকা নেওয়া ৬০ হাজার বাসিন্দাকে হজ পালনের অনুমতি দেয়।

করোনাভাইরাস মহামারির কারণে মুসলিম তীর্থযাত্রীদের বহুল আকাঙ্ক্ষিত হজ এবং ওমরাহ পালনে ব্যাঘাত সৃষ্টি হয়। প্রত্যেক বছর সৌদি আরবের সরকার হজ এবং ওমরাহ থেকে প্রায় ১২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের রাজস্ব আয় করে।

হজ-ওমরাহর আয়োজন সৌদির শাসকগোষ্ঠীর জন্য অত্যন্ত মর্যাদার বিষয়। ইসলামের পবিত্রতম স্থানের রক্ষণাবেক্ষণ তাদের রাজনৈতিক বৈধতার সবচেয়ে শক্তিশালী উৎস।

তবে প্রত্যেক বছর হজ এবং ওমরাহ তীর্থযাত্রীর তুলনায় বেশিসংখ্যক পর্যটক ঘুরতে যান দেশটিতে। ২০১৯ সালের শেষের দিকে শুরু হওয়ার করোনাভাইরাস মহামারির কারণে দেশটির পর্যটন খাতে ব্যাপক ধস শুরু হয়। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর থেকে পরের বছরের মার্চ পর্যন্ত ৪ লাখ বিদেশি পর্যটক ভিসা দেয় সৌদি সরকার।

মহামারি ধাক্কা কাটিয়ে ধীরগতিতে সবকিছু স্বাভাবিক খুলে দেওয়ার পথে হাঁটছে সৌদি আরব। টিকা নেওয়া পর্যটকদের জন্য গত ১ আগস্ট থেকে সীমান্ত খুলে দেওয়ার ঘোষণা দেয় দেশটির সরকার।

এসপিএ বলছে, রোববার থেকে টিকার ডোজ পূর্ণকারী ক্রীড়াভক্তরাও দেশের সব স্টেডিয়াম ও অন্যান্য ক্রীড়া স্থাপনায় বসে খেলা দেখার অনুমতি পাবেন। একই সঙ্গে এখন থেকে বেশিরভাগ উন্মুক্ত জায়গায় মাস্ক পরার বাধ্যবাধকতা আর থাকবে না।

মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত সৌদি আরবে ৫ লাখ ৪৭ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত এবং ৮ হাজার ৭৬০ জন মারা গেছেন।

সূত্র: এএফপি।

সংশ্লিষ্ঠ আরও খবর